বাড়ি ক্রয়ের ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো প্রভাব ফেলে তা জানেন কি?-Factors that affect the purchase of a home

Published on Property Document
Blue Vintage Sea Shell Adventure Blog Travel Agency Hand Drawn Logo (1080 × 1080 px) (1).jpg

নিজের একটি স্থায়ী আবাসন কে না চায়। কেউ ঋণ করে কিংবা সারাজীবনের সঞ্চয় দিয়ে কিনে নেয় স্বপ্নের আবস্থল। বর্তমানে ঝামেলামুক্তভাবে বাড়ি কিনতে হলে বেশ কিছু বিষয় নিয়ে ভাবতে হয়। সেটি দেশের যে প্রান্তেই হোক না কেন! বাড়ি কেনার পূর্বে কিছু বিষয় আছে যা অবশ্যই আপনার বাড়ি ক্রয়ের সিদ্ধান্তের উপর প্রভাব ফেলে। যেমনঃ লোকেশন, নিরাপত্তা ব্যবস্থা, সেই এলাকার মানুষদের আচার- আচরণ, বাড়ির কাগজ পত্র বৈধ কিনা ইত্যাদি। বাড়ি ক্রয়ের ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো প্রভাব ফেলে কিংবা যে বিষয়গুলো অবশ্যই বিবেচনায় রাখবেন সেগুলো জেনে নিন আজকের এই ফিচারে।

বাড়ি ক্রয়ের ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো প্রভাব ফেলে-Affect the purchase of a home

আপনি যখন একটি বাড়ি কেনার চিন্তাভাবনা করবেন তখন প্রধানত দুই ধরনের বিষয়ের উপর নির্ভর করবে। একটি হচ্ছে মনস্তাত্ত্বিক এবং অপরটি হলো রিপ্রেজান্টেটিভ অর্থাৎ যে বিষয়গুলো বাহ্যিকভাবে প্রভাব ফেলে।

বাহ্যিক ফ্যাক্টরসমূহ-Outside Facts

বাহ্যিকভাবে প্রভাব ফেলে যে বিষয়গুলো সেগুলো হচ্ছেঃ

বাজেটের সাথে সামঞ্জস্যতা-Compatibility with the budget

budget of home.jpg

বাড়ি কিনতে গেলে সর্বপ্রথম যে বিষয়টি প্রভাব ফেলে সেটি হচ্ছে বাড়ির দামের সাথে ক্রেতার ক্রয়সীমার সাধ্য। ধরুন একটি বাড়ি আপনার খুব পছন্দ হয়েছে। সব সুযোগ-সুবিধাবলী আপনার মন মতন কিন্তু দামাদামির বিষয়টি যখন আসলো তখন দেখলেন যে দাম একটু কিংবা অনেকখানি বেশি যা আপনার সাধ্যের বাইরে। তখন আর বাড়িটি কেনা হবেনা। তাই দাম নিয়ে আগেই কিছুটা ধারণা নিয়ে যাওয়া উচিত।

লোকেশন-Location

বাড়ি কিনতে গেলে বাজেটের পরেই মাথায় যে বিষয়টি আসে সেটি হলো বাড়ির লোকেশন। বাড়ির লোকেশন অফিস থেকে কতটুকু দূরে, যাতায়াত সুবিধা কিরকম আছে, এছাড়াও লোকেশনটি এমন কোন জায়গায় যেখানে দোকানপাট, হাসপাতাল, রেস্টুরেণ্ট, ফিটনেস সেন্টার, পার্ক, স্কুল-কলেজ আছে কিংবা তার আশেপাশে আছে কিনা তা অবশ্যই ক্রেতার বাড়ি কেনার ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলে।

নিরাপত্তা ব্যবস্থা-Security

এটি খুব স্বাভাবিক বিষয় যে আপনি যখন একটি বাড়ি কিনবেন বাড়িটি যে এলাকায় অবস্থিত সেই এলাকাটি নিরাপদ কিনা তা অবশ্যই বিবেচনায় রাখবেন। চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইয়ের মতন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে থাকলে সেই এলাকা এড়িয়ে চলবেন।

কাগজপত্রে কিংবা কোন আইনি ঝামেলা আছে কিনা-Legal issues or Documents

legal doc.jpg

বাড়ি, বাড়ির লোকেশন, এলাকার সকল সুযোগ-সুবিধা পছন্দ হওয়ার পর যে বিষয়টি ক্রেতাদের চিন্তাভাবনায় আসে সেটি হলো বাড়ির দলিলপত্রে কোনো ঝামেলা আছে কিনা কিংবা বাড়িটির চলমান কোনো আইনি ঝামেলা আছে কিনা। জমির করের হালনাগাদ খেয়াল রাখতে হবে। ভূমি কর না দেওয়ার কারণে কোন সার্টিফিকেট কেস আছে কিনা তা খুঁজে বের করা প্রয়োজন।

পূর্ববর্তী মালিকের চারিত্রিক আচার আচরণ-Behavior of the previous owner's character

পূর্ববর্তী মালিকের চারিত্রিক আচার আচরণ কেমন ছিল তা বাড়ি ক্রয়ের ক্ষেত্রে অবশ্যই ক্রেতার মনে প্রভাব ফেলে। হোক সেটি কোনো ডেভেলপার কোম্পানি কিংবা কোনো একক মালিক।

নকশার সাথে বাড়ির মিল-Similarity of home with design

বিক্রয়ের জন্য প্রস্তাবিত বাড়ির প্রকৃত অবস্থার সাথে ঘটনাস্থলের নকশা মেলে কিনা এই বিষয়টিও বেশ প্রভাব ফেলে। প্রয়োজনে আশেপাশের জমির মালিকদের কাছ থেকে দাগ-খতিয়ান জানার পর গরমিল পেলে বাড়ি না কেনা।

রাজউকের অনুমোদন-Approval of Rajuk

বাড়ি কিনতে গেলে দলিল, নকশা দেখার পাশাপাশি রাজউকের অনুমোদন আছে কি নাই এই বিষয়টিও বেশ প্রভাব ফেলে। বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাসের সংযোগ, মাল্টি লেভেল সিকিউরিটি সিস্টেম, জরুরী ড্রেনেজ সিস্টেম ঠিকঠাক আছে কিনা সেটিও খতিয়ে দেখে এরপর কেনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

কিস্তির ধরন-Type of installment

যদি বাড়িটি কিস্তিতে কেনা হয়, চুক্তিতে স্পষ্টভাবে উল্লেখ করতে হবে কতটি কিস্তিতে টাকা শোধ হবে । যদি কোন কারণে ক্রয় করা না যায়, তাহলে এটি কিভাবে নিষ্পত্তি করা হবে তা স্পষ্টভাবে উল্লেখ করতে হবে।

খাসজমি-Land

এটি নিশ্চিত করতে হবে যে বাড়িটি সরকারের খাস জমির উপর নির্মিত কিনা । এছাড়াও বাড়ির জমিটি পরিত্যক্ত সম্পত্তির তালিকায় আছে কিনা তা জেনে নেয়া উচিত। বাড়িটি আগে যে কোন সময়ে অধিগ্রহণ করা হয়েছে বা প্রক্রিয়াধীন আছে কিনা, তা ওয়াকফ কিনা এসকল বিষয়ের উপরও বাড়ি কেনার সিদ্ধান্তের উপর প্রভাব ফেলে।

মনস্তাত্ত্বিক ফ্যাক্টর-Psychological Factors

বাড়ি কেনার ক্ষেত্রে কিছু ফ্যাক্টর রয়েছে যা ক্রেতার মনে প্রভাব ফেলে। যেমনঃ

আবেগ-Emotion

emotion.jpg

যখন কেউ একটি বাড়ি কিনে সে অবশ্যই থাকার জন্য বাড়িটি কিনে। বাড়ি এমন একটি জায়গা যেখানে নানা স্মৃতি জরিয়ে থাকবে। বাড়ির প্রতি ভবিষ্যতে একটি আত্মিক বন্ধন গড়ে উঠবে। তাই বাড়িটি দেখতে সুন্দর, পরিপাটি এবং ভালো একটি লোকেশনে থাকলে যে কেউই প্রথম দেখাতেই বাড়িটি কিনে নিতে চাবে।

২০১৩ সালে, কমনওয়েলথ ব্যাঙ্ক অস্ট্রেলিয়ান ক্রেতাদের একটি সমীক্ষা চালিয়ে দেখেছে যে ৪৪ শতাংশ ব্যাক্তি বাড়ি কেনার জন্য বেশি অর্থ প্রদান করেছে কারন তারা সত্যিই বাড়িটি পছন্দ করেছে ৷

কুসংস্কার-Superstition

এই আধুনিক যুগে এসেও অনেকসময় ক্রেতাদের মনে নানাবিধ কুসংস্কার বিরাজ করে। যেমনঃ অনেকে ৭ কে শুভ সংখ্যা এবং ১৩ কে অশুভ সংখ্যা হিসেবে বিবেচনা করেন। তাই বাড়ি কিনতে গেলেও বাড়ির নাম্বার কিংবা অন্যান্য কোনো মতবাত যার কোনো ভিত্তি নেই, এসকল বিষয়ও প্রভাব ফেলে।

অনুভূত মান-Perceived value

আরেকটি মনস্তাত্ত্বিক ফ্যাক্টর হচ্ছে অনুভূত মান (Perceive value). একটি উদাহরণ হচ্ছে, ধরুন আপনি একটি বাড়ি কিনবেন। বাড়িটি আপানর বাজেট, লোকেশন এবং সুযোগ সুবিধা অনুযায়ী আপনার কাছে একদম পারফেক্ট লেগেছে কিন্তু বাড়ির দেয়ালের রং বেশ পুরনো। যেন শত বছর আগে দেয়ালে রং করানো হয়েছে। আপনি কি তাহলে বাড়িটি কিনবেন? নিশ্চয়ই না! কিন্তু একই বাড়িটি যদি নতুন করে সুন্দরভাবে রং করানো থাকত তাহলে আপনি কিনে নিতেন।

man-to-consider-the-purchase-of-my-home.jpg

এই রং করা বাড়ি এর পারসিভ ভ্যালু কয়েকগুন বাড়িয়ে দিয়েছে এবং কেনার সম্ভাবনাও বৃদ্ধি করেছে। আরও কিছু বিষয় যা বাড়ির পারসিভ ভ্যালু বাড়ায় সেটি হছে বাড়ির বহিরাঙ্গন এবং অভ্যন্তরীন ডিজাইন।

প্রথম দেখায় অনুভূতি-First Impression

বাংলায় একটি প্রবাদ রয়েছে, “আগে দর্শনধারী, এরপর গুণবিচারী।” প্রথম দেখায় অনুভূতি (First Impression) অনেকটা অনুভূত মানের মতই। একটি বাড়ি যদি দেখতে জির্ণশীর্ণ হয়, বাড়ির চারপাশ এলোমেলো, ভাঙ্গা প্রবেশদ্বার থাকে; তাহলে স্বাভাবিকভাবেই যে কেউই বাড়িটি কিনতে চাইবে না। তাই বাড়ি বিক্রির পূর্বে সুন্দর এবং পরিপাটি করে বাড়ি সাজিয়ে নিতে হবে। দেয়ালের রং পুরনো হলে রং করতে হবে। এলোমেলো বাগান থাকলে তা সুন্দর ফুলের কিংবা ফল গাছ দিয়ে সাজিয়ে নিতে হবে। প্রবেশদ্বার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে এবং ভাঙ্গা থাকলে তা মেরামত করতে হবে।

ভিন্ন বাড়ি ভিন্ন গল্প- Different Story

প্রতিটি বাড়ির পেছনে কিছু গল্প থাকে। সদ্য নতুন বাড়ির ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য গল্প কিংবা ইতিহাস না থাকলেও পুরোনো বাড়ির পেছনের গল্প থাকা বেশ স্বাভাবিক। অনেক সময় এই গল্পই ক্রেতাকে বাড়ি কেনার ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলে।

রিভিউ-Review

review.jpg

বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া অথবা বিক্রেতার ওয়েবসাইটে অন্যান্য কাস্টমারদের রিভিউ অনেক ক্ষেত্রেই বাড়ি কেনার সিদ্ধান্তের উপর প্রভাব ফেলে।

লাইফস্টাইল-Lifestyle

প্রত্যেকটি মানুষের লাইফস্টাইল ভিন্ন ধরনের। কারো সাথে কখনোই অন্য কারোর লাইফস্টাইল মিলবে না। কেউ কেউ বদ্ধ পরিবেশে থাকতে পছন্দ করে, কেউ আবার খোলামেলা, আলো-বাতাস পূর্ণ স্থানে থাকতে পছন্দ করে। অনেকে আছে বাড়ির আশে পাশে ব্যায়াম করার জন্য পার্ক কিংবা ফিটনেস সেন্টার খুঁজে। কেউ কেউ নিজের বাড়ির মধ্যেই ব্যায়ামের সকল সুযোগ- সুবিধা পেতে চায়। তাই জীবনযাত্রার ধরনও একটি বাড়ি কিনতে প্রভাব ফেলে।

উপরোক্ত ফ্যাক্টর বা বিষয়গুলো বাড়ি কেনার ক্ষেত্রে ক্রেতার মনে অবশ্যই প্রভাব ফেলে। আপনি যদি ঝামেলামুক্ত উপায়ে ফ্ল্যাট কিংবা বাড়ি কিনতে চান তবে নির্দ্বিধায় যোগাযোগ করুন ফ্লাগ বাংলাদেশ (https://www.flagbangladesh.com) এ। ফ্লাগ বাংলাদেশ আপনার পাশে আছে সবসময়।